আচার খেলে কী হয়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক : একটু-আধটু আচার তৈরি হয় না, এমন বাড়ি খুব কমই আছে। বিভিন্ন মৌসুমে নানা পদের আচার তৈরি করে রেখে বছরজুড়ে খাওয়া হয়। খিচুড়ি, পোলাও কিংবা গরম ভাতের সঙ্গে আচার খাওয়ার অভ্যাস আছে অনেকের। এটি যে শুধু সুস্বাদু তা-ই নয়, মুখে রুচি বাড়াতে বেশ কার্যকরী। অনেকে মনে করেন, আচার আমাদের শরীরের জন্য অতটা উপকারী নয়। আসলেই কি তাই?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আচার আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতি করে। প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি হয় আচার। মধ্যে থাকে ভিটামিন এ এবং প্রো ব্যাকটেরিয়ার দুর্দান্ত উৎস।

আচারে প্রচুর তেল ও লবণ থাকায় অনেকে আচারকে অস্বাস্থ্যকর মনে করেন। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, তেল ও লবণের মিশ্রণ না থাকলে ব্যাকটেরিয়া তৈরি হতে পারবে না।

আমাদের শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে লবণ। শরীরচর্চার অভাব, নিদ্রাহীনতা, প্যাকেটজাত খাবার অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন। সাদা লবণ আপনি খেতে না চাইলে সন্দক লবণ বা কালো লবণ রান্নায় ব্যবহার করতে পারেন।

আচারে থাকা তেল হার্টের জন্য ভালো নয়- এমন ধারণা ঠিক নয়। ঘানিতে ভাঙানো সরিষার তেল দিয়ে রান্না করলে বা আচার তৈরি করলে তা কখনোই শরীরের জন্য ক্ষতিকর হবে না।

আচারে আছে ভিটামিন, খনিজ এবং উপকারী ব্যাকটেরিয়া। উপকারী বলে অনেকটা আচার একদিনে খেয়ে ফেলবেন না যেন!

দিনে এক-দু’চামচ আচার খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। খিটখিটে মেজাজ ভালো করতেও কাজ করে আচার। তাই প্রতিদিনের ডায়েটে রাখুন কিছুটা আচার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *